সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

হলি ল্যান্ড কলেজ বাংলাদেশের উত্তর জনপদের প্রাচীন জেলা দিনাজপুরে অবস্থিত শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত আধুনিক- প্রযুক্তিনির্ভর, একবিংশ শতাব্দীর যুগোপযোগী শিক্ষায় প্রতিশ্রুতিবন্ধ, স্ব-অর্থায়নে পরিচালিত একটি প্রাইভেট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ঢাকার বাইরে মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুষ্প্রাপ্যতা একটি সহজ দৃষ্টিগ্রাহ্য ব্যাপার। ভালো শিক্ষক ও ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভাবে অনেক সম্ভাবনাময় শিক্ষা-জীবন কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না, আর তাই জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার লক্ষ্যে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত কিছু শিক্ষানুরাগী বিদ্যোৎসাহী ব্যক্তির নিরলস প্রচেষ্টায় ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় হলি ল্যান্ড কলেজ। ০২ জুলাই ২০১২ সোমবার, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে প্রথম প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ডিজিটাল কলেজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে কলেজটির শুভ উদ্ভোদন হয়। কলেজটি ২০১৪ সালে প্রথম ব্যাচেই এইচএসসি পরীক্ষায় (বিজ্ঞান) দিনাজপুর বোর্ডে ৩য় স্থান লাভের গৌরব অর্জন করে এবং পরবর্তী বছর গুলোতে এইচএসসি (বিজ্ঞান) পরীক্ষায় দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অধিক সংখ্যক জিপিএ- ৫ সহ সন্তোষজনক ফলাফল লাভ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকবৃন্দের প্রত্যাশা অনুযায়ী হলি ল্যান্ড কলেজ "২০১৭-১৮" শিক্ষাবর্ষ হতে এইচএসসি - ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ভর্তি শুরু করে। উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ সরকার প্রণীত নতুন শিক্ষা নীতি অনুসরন করে হলি ল্যান্ড কলেজ ২০১৯ সাল হতে কলেজ পর্যায়ের সাথে সংযুক্ত করে নবম শ্রেণিতে এবং একই বছরের জানুয়ারি হতে স্কুল পর্যায়ে ৩য়-৮ম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করে আসছে।


বর্তমানে কলেজের দু'টি ক্যাম্পাস - ক্যাম্পাস-০১ (গার্লস), উত্তর বালুবাড়ি এবং ক্যাম্পাস-০২ (বয়জ), ০১ নং খামার কাচাই (বাস টার্মিনালের দক্ষিন পার্শ্বে), সদর, দিনাজপুর এবং স্কুল ক্যাম্পাস- মির্জাপুর (বিআরটিসি বাস টার্মিনাল সংলগ্ন), সদর, দিনাজপুর। কলেজ কোড : ৮০২৬ এবং EIIN: ১৩৫৩৭২, মাধ্যমিক কোড : ৮১১৫।

পরিচালকমন্ডলীর সার্বক্ষণিক দিকনির্দেশনা ও সরাসরি তত্ত্বাবধায়নে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমে ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি জাতীয় পর্যায়ে নাম ও খ্যাতি অর্জন করেছে। শিক্ষার্থীর জ্ঞান, দক্ষতা, দৃষ্টিভঙ্গি, মূল্যবোধ ও সৃজনশীল ক্ষমতা বিকাশের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করতে হলি ল্যান্ড কলেজ বদ্ধপরিকর।